শিরোনাম

» পর্যাপ্ত রুট নেই বাংলাদেশ বিমানের

পর্যাপ্ত রুট নেই বাংলাদেশ বিমানের

টানা ১৬ ঘণ্টা উড়তে পারে এমন ৮টি উড়োজাহাজ রয়েছে বিমানের। কিন্তু পূর্ণ সক্ষমতা ব্যবহারের রুট রয়েছে মাত্র দুটি। এ অবস্থায় ডিসেম্বরে বিমানের বহরে যুক্ত হতে হচ্ছে আরো দুটি ড্রিমলাইনার। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, লম্বা রুট না বাড়িয়ে উড়োজাহাজ বাড়ানো এক ধরণের অপচয়।

বিভিন্ন রুটে যাতায়াত করে বিমানের ১৬টি উড়োজাহাজ। এর মধ্যে ১০টিই যুক্তরাষ্ট্রের নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোয়িং থেকে কেনা। এর চারটি চতুর্থ প্রজন্মের বোয়িং সেভেন এইট সেভেন-ড্রিমলাইনার।

বিমানের অন্তত ৮টি উড়োজাহাজ টানা ১৬ ঘণ্টা উড়তে পারে। অথচ দীর্ঘ সময় চলার রুট কেবল যুক্তরাজ্যের লন্ডন ও ম্যানচেস্টার।

বোয়িং ট্রিপল সেভেন ও সেভেন এইট সেভেন ব্যবহার হচ্ছে সিঙ্গাপুর, ব্যাংকক, কুয়ালালামপুর ও মধ্যপ্রাচ্যের দেশে যেতে। যেখানে যেতে সময় লাগে মাত্র ৩ থেকে ৮ ঘণ্টা।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সঠিক রুট পরিকল্পনা না থাকায় উড়োজাহাজগুলোর পূর্ণ সক্ষমতা ব্যবহার করা যাচ্ছে না, অথচ নষ্ট হচ্ছে ইঞ্জিন সাইকেল।

বিমান কর্তৃপক্ষ বলছে, নতুন উড়োজাহাজ যুক্ত হলে কানাডার টরেন্টো, জাপানের নারিতা ও যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে ফ্লাইট চালুর পরিকল্পনা রয়েছে।

তিনটি ড্যাশ এইট ও দুটি বোয়িং সেভেন এইট সেভেন বহরে যুক্ত হলে ২০২১ সালে বিমানের উড়োজাহাজ সংখ্যা হবে ২১টি।

সূত্র: ইনডিপেডেন্ট টিভি।